Wednesday, 22-May-2019, 6:57:22 AM
Welcome Guest

ENTERTAINMENT

UNDER CONSTRACTION


Site menu
Login form
Section categories
Advertaisment

Ad
Your Ad Here
Ad
Your Ad Here




TEAM
Team Icon Player Team Captain
Cyclones of Chittagong Tamim Iqbal Nafees Iqbal
Dhaka Dynamites Mohammad Ashraful Mohammad Ashraful
Barisal Blazers Shahriar Nafees Shahriar Nafees
Sultan of Sylhet Alok Kapali Mashrafe Mortaza
Kings of Khulna Shakib Al Hasan Shakib Al Hasan
Rajshahi Rangers Naeem Islam Khaled Mashud

Six teams will compete in this NCL Twenty20 tournament from six districts in Bangladesh:

  1. Barisal Blazers
  2. Cyclones of Chittagong
  3. Dhaka Dynamites
  4. Kings of Khulna
  5. Rajshahi Rangers.
  6. Sultans of Sylhet
 

সবার আগে সেমিফাইনালে ঢাকা ডায়নামাইটস

টানা তৃতীয় জয়ে প্রথম দল হিসেবে এনসিএল টি-টোয়েন্টির সেমিফাইনাল নিশ্চিত করে ফেলল ঢাকা ডায়নামাইটস। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে কাল সন্ধ্যার ম্যাচে তাদের ৭ উইকেটে জয় সাকিব আল হাসানের কিংস অব খুলনাকে উপহার দিল তিন ম্যাচে দ্বিতীয় পরাজয়।
লিগে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে ধারাবাহিক মোহাম্মদ আশরাফুলের ঢাকা ডায়নামাইটসই। ঠিক ততটাই ‘ধারাবাহিক’ অধিনায়ক আশরাফুলের পারফরম্যান্সও— তিন ম্যাচে তাঁর রান ৭, ০ ও ৭। কিংস অব খুলনার দেওয়া ১২৫ রানের টার্গেট ১৮.৫ ওভারেই ছুঁয়ে ফেলাটা সহজ হয়েছে আশরাফুলের ওপেনিং সঙ্গী শামসুরের ৫২ বলে অপরাজিত ৫১ রানের সুবাদে। এ ছাড়া শ্রীলঙ্কান জীবন মেন্ডিস করেছেন ৩৫ বলে ৪৪ রান।
আশরাফুলের মতোই অবস্থা সাকিব আল হাসানেরও। আগের দুই ম্যাচে ১৮ ও ১৬ করার পর কাল মাত্র ৪ রান করেই রফিকের বলে শর্ট থার্ড ম্যানে ক্যাচ। খুলনার ১২৫ রানের সংগ্রহে দুই শ্রীলঙ্কানের অবদানই বেশি। উদয়াত্তে ১৯ বলে করেছেন ৩৩, জয়সা ১৮ বলে ২১। ফরহাদ হোসেন ২৪ বলে করেছেন ২৫ রান। ব্যাটসম্যান আশরাফুল জ্বলে উঠতে না পারলেও বোলার আশরাফুল কালও সফল। ২০ রানে ৩ উইকেট, এর মধ্যে ফরহাদ আর নূর হোসেনের উইকেট দুটি পরপর দুই বলে। ‘বোলার’ আশরাফুল প্রথমবারের মতো ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কারও পেয়ে গেলেন এতে।.
প্রেসবক্সে কেবলই আফসোস ছড়ালেন অলক কাপালি। এনসিএল টি-টোয়েন্টি লিগে প্রথম দুই ম্যাচে ৪৯ আর ৩৩ রানের পর কাল ৩৮ বলে ৬২। অথচ এই অলকই কি না নেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাংলাদেশ দলে!
মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে রাজশাহী রেঞ্জার্সের সামনে টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ ১৮২ রানের চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেওয়া সুলতানস অব সিলেটের ২৬ রানের জয়ে অলকের ইনিংসের বড় অবদান। এর আগে সকালে বিকেএসপিতে সাইক্লোনস অব চিটাগং প্রথম জয়ের দেখা পেয়েছে বাঁহাতি পেসার কাজী কামরুলের বোলিং আর তামিম ইকবালের ব্যাটিং-নৈপুণ্যে। বরিশাল ব্লেজার্সকে তারা হারিয়েছে ৮ উইকেটে।
শ্রীলঙ্কান ওপেনার কৌশল্য বীরারত্নে আর ধীমান ঘোষের ওপেনিং জুটিতে ৬.৩ ওভারেই ৫৫ রান। অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাকে নিয়ে সুলতানস অব সিলেটকে অস্পর্শনীয় দূরত্বে নিয়ে যাওয়ার বাকি কাজটা করেছেন অলক। মাশরাফি ১৭ বলে ২৬ রান করে মুক্তার আলীর বলে বোল্ড হয়ে গেলেও সোহরাওয়ার্দীর বলে অলক এক্সট্রা কাভারে নাদিফের ক্যাচ হয়েছেন শেষ ওভারে। গ্যালারির হাজার দুয়েক দর্শক অলক-ঝড়ের চুম্বক অংশটা দেখে নিয়েছে ঠিক আগের দুই ওভারেই। মুক্তারের করা ইনিংসের ১৮তম ওভারে এসেছে ১৮, তাতে লং অন দিয়ে মারা ছক্কাটিসহ অলকেরই ১১। শফিউলের পরের ওভারে আসা ১৭ রানের ১৭-ই অলকের, বাউন্ডারিতেই ১৬ রান। সাত বাউন্ডারি আর ওই এক ছক্কায় ফিফটি করেছেন ৩২ বলে, পরে চার মেরেছেন আরও দুটি।
ছয় নম্বর ব্যাটসম্যান শুভাগত হোমের ফিফটিটা না হলে ৬০ রানে ৪ উইকেট হারানো রাজশাহী রেঞ্জার্সের জন্য পরাজয়ের ব্যবধান হতে পারত আরও বড়। ৪ ছক্কা আর দুই বাউন্ডারিতে শুভাগতের ৫১ রান অবশ্য দর্শক বিনোদনেরই উপলক্ষ্য হলো কেবল, রাজশাহীর টানা দ্বিতীয় হার এড়ানোর সহায় হতে পারেনি। কৃতিত্বটা সিলেটের দুই বোলার ফরিদউদ্দিন আর মোশাররফ হোসেনের। ৩ উইকেট করে নিয়েছেন দুজনই, ফরিদ তো অলককে টপকে ম্যান অব ম্যাচের পুরস্কারটাও নিলেন।
তাতে অবশ্য অলকের কোনো আফসোস নেই, আফসোস নেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দলে থাকতে না পেরেও, ‘যে সময়টায় বিভিন্ন দলে খেলার জন্য আমাকে নির্বাচকেরা ডেকেছিলেন, তখন আমার শারীরিক অবস্থা খুবই খারাপ ছিল। জীবনের চেয়ে তো আর খেলাটা বড় না! বিশ্বকাপ নিয়ে তাই আমার কোনো আফসোস নেই।’ তবে এই এনসিএল টি-টোয়েন্টি লিগে একটা প্রতিজ্ঞা নিয়েই নেমেছেন তিনি, ‘এই টুর্নামেন্টের সব ম্যাচে আমি ধারাবাহিকভাবে রান করতে চাই।’
সেটা অলক করছেনও। সাইক্লোনস অব চিটাগংয়ের ওপেনার তামিম ইকবাল অলকের মতো এতটা ধারাবাহিক না হলেও কাল পেলেন লিগে নিজের দ্বিতীয় ফিফটি। বিকেএসপিতে বরিশাল ব্লেজার্সের ৯২ রানের মামুলি সংগ্রহ টপকাতে গিয়ে সাইক্লোনসের তামিম একাই করেছেন ৫১ বলে অপরাজিত ৬৫। তবে ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার এখানেও উঠেছে একজন বোলারের হাতে। ২৩ রানে ৪ উইকেট নিয়ে বরিশালকে অত অল্প রানে বেঁধে ফেলার আসল কাজটা যে করেছেন পেসার কাজী কামরুল! ১৫ রানে ৩ উইকেট নিয়েছেন এনামুল জুনিয়রও। বরিশালের সর্বোচ্চ স্কোরার শাহরিয়ার নাফীস (৩৩ বলে ৩০) আর মাহমুদুল হাসানকে পর পর দুই বলে ফিরিয়ে হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনাও জাগিয়েছিলেন এই বাঁহাতি স্পিনার।

PREVIOUS <<==>>  NEXT

Your Ad Here
-AUS-AFGHAN-B'DESH-E'LAND-INDIA
-I'LAND-PK-S'AFRICA-S'LANKA-W'INDISE
-Z'BABWE>T20 RANKING>T20 LIVE SCORE>T20 FIXTURES>T20 TEAMS
>POINTS TABLE>IPL LIVE SCORE>CRICKET WorldCup & OTHERS>ALL SPORTS NEWS>FIFA FOOTBALL WC & OTHERS
>LIVE FOOTBALL SCORE>WORLD CUP FOOTBALL FIXTURES>WORLD CUP FOOTBALL RESULTS & POINTS>WORLD RANKING>CLUB FOOTBALL NEWS
>SONG BENGALI,
>SONG HINDI,>SONG ENGLISH,>SONG VARIOUS
>MUSIC FM RADIO- -PLAYER, >DOWNLOAD SONG>SOFTWARE PC.>MUSIC TV
>NEWS FM RADIO- -PLAYER,>SOFTWARE MOBILE,>MOBILE OPERATOR
>NEWS TV ,
>WORLD- -NEWSPAPER>UN & COLLEGE ADMISSION
>S.S.C & H.S.C, DEGREE RESULT>LIVE CHAT

PLAYER

Search
Calendar
«  May 2019  »
SuMoTuWeThFrSa
   1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031
Entries archive
Statistics

Total online: 1
Guests: 1
Users: 0
Site friends
Ad

Ad
Your Ad Here
Custom Search


Your Ad Here